করোনা ভাইরাসের জন্যে কি জামাআতে সালাত ত্যাগ করা যাবে?

করোনা ভাইরাস এবং জামাআতে সালাত

ইমাম মারদাবি [রহিমাহুলাহ] তাঁর মাযহাবের মতের সংকলনের বিখ্যাত কিতাব আল-ইনসাফে বলেছেনঃ

ويُعْذرُ في تركِ الجُمُعَةِ والجَماعَةِ، المَريضُ. بلا نِزاعٍ، ويُعْذَرُ أيضًا في ترْكِهما لخَوْفِ حُدوثِ المرَضِ.

“জুমুআ এবং জামাআতের সালাত ত্যাগ করা অসুস্থ ব্যক্তির জন্যে জায়েজ [ওজরপ্রাপ্ত]। এই ব্যাপারে [মাযহাবে] ইখতিলাফ নেই। তেমনি যে ব্যক্তি অসুস্থ হবার ভয় করে, সে-ও ওজরপ্রাপ্ত।”

উস্তাদ ইউসুফ বিন সাদিক আল-হাম্বলিকে প্রশ্ন করা হয়েছেঃ “অনেক দেশে করোনা ভাইরাস/রোগ ছড়িয়ে গিয়েছে। তাই অসুস্থ হবার ভয়ে মসজিদে না যাওয়াটা কি বৈধ কারণ?”

উত্তরে তিনি বলেছেনঃ “হ্যাঁ, হাম্বলি মাযহাব অনুসারে সাধারণভাবে জুমুআ এবং জামাআতে সালাত আদায় না করার জন্য এটি বৈধ ওজর।”

শাইখ ড. ফারিস আল-ফালিহ আল-খাযরাজি আল-হাম্বলি বলেছেনঃ

“মানুষের মসজিদে অংশগ্রহণ করার ক্ষেত্রে তিনটি দৃশ্যপট রয়েছেঃ

প্রথমত, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি জুমুআ এবং জামাতে সালাত আদায় থেকে ওজরপ্রাপ্ত। এর কারণ হচ্ছে, যখন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন অসুস্থ হয়েছেন, তিনি মসজিদে যাননি।

দ্বিতীয়ত, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির মসজিদে প্রবেশ করা জায়েজ নয়। বস্তুত, এই ব্যক্তির অন্যদের সাথে মেশা একেবারে জায়েজ নয় কারণ এই মেশা অন্যের ক্ষতির দিকে ধাবিত করবে। আর জীবনের সংরক্ষণ শরিয়ার একটি মাকাসিদ।

তৃতীয়ত, যে ব্যক্তি রোগ ছড়িয়ে পড়া এবং আক্রান্ত করার ভয় করে, তাঁর জন্যে জামাআতে এবং জুমুআর সালাত আদায় ত্যাগ করা জায়েজ। আমাদের হাম্বলি উলামারা এই পয়েন্টটি আলোচনা করেছেন এবং বলেছেনঃ “যে ব্যক্তি অসুস্থ হবার ভয় করে”। আলিমরা ব্যাখ্যা করেছেন যে এটি[র হুকুম] রোগের ন্যায়। “

(পরিশিষ্ট ১ঃ মাযহাবে সাধারণভাবে পুরুষদের জামাআতে সালাত আদায় করা ওয়াজিব বা ফরয, মসজিদে হোক কিংবা বাইরে। মসজিদে জামাআতে সালাত আদায় করা সুন্নাহ।

পরিশিষ্ট ২ঃ যেহেতু এখনো পৃথিবীর সব স্থানে এর প্রকোপ একরকম নয়, তাই স্থানীয় উলামা এবং স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সাথে পরামর্শ করে নেওয়া উচিৎ।- হাম্বলি ফিকহ টিম)

উত্তরদাতাঃ শাইখ ইউসুফ বিন সাদিক, শাইখ ফারিস ফালিহ [সংকলন]

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *