তাঁর জ্ঞান এবং লেখনির ব্যপকতা-২ শাইখুল ইসলাম ইবনে তাইমিয়া

“ আশ্চর্য্যজনক একটি বিষয় হলো তাঁকে যখন প্রথমবারের মত মিশরে কারারুদ্ধ করা হয়, জেলে তাঁর নিজের কাছে কোন বই রাখা নিষিদ্ধ করে দেয়া হয়। কিন্তু এই সময়ও তিনি ছোট বড় বেশ কয়েকটি বই লিখেন যেসব বইয়ে তিনি বক্তব্যের প্রয়োজনে হাদিস, সাহাবিদের বক্তব্য, ‘আলিমদের বক্তব্য, হাদিসের ইমামদের নাম, বইয়ের লেখক এবং বইয়ের নাম, সেসব কারা বলেছেন বা বর্ণনা করেছেন – সব নাম ধরে ধরে উল্লেখ করেছেন। প্রত্যেকটি বর্ণনা কোন বইয়ে পাওয়া যাবে এবং বইটির কোথায় তা পাওয়া যাবে সেটি পর্যন্ত তিনি বর্ণনা করেছেন। আর এ সবই তিনি বর্ণনা করেছেন তাৎক্ষণিকভাবে শুধুমাত্র তাঁর স্মৃতি থেকে, কারণ ঐ সময় তাঁর কাছে একটি বইও ছিল না, যা তিনি রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। পরবর্তীতে এসব তথ্য যাচাই ও পুনঃনিরীক্ষণ করে দেখা হয় এবং আল-হামদুলিল্লাহ কোন ভুল, এমনকি পরিবর্তনও পাওয়া যায়নি। আর এই বইসমূহের একটি হলো “ আস-সারিম আল-মাসলুল ‘আলা শাতিম আর-রাসুল ”*। আর এটি ছিল তাঁর উপর আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ। “

” তাঁর লেখনীর প্রকৃত সংখ্যা কত, আমার পক্ষে তা গণনা করা বা সবগুলো লেখনীর নাম একত্রিত করা সম্ভব নয়। সম্ভবত কারো পক্ষেই তা জানা সম্ভব নয়, কারণ এর সংখ্যা অনেক অনেক বেশি। এদের মধ্যে যেমন ছোট আছে, তেমনি বড়ও, আর এগুলো বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এমন খুব কমই ঘটেছে যে, আমি কোন একটি শহরে গিয়েছি, কিন্তু সেখানে তাঁর কোন না কোন একটি বইয়ের খোঁজ না পেয়েছি। ”

* [“ বইটিতে তিনি উল্লেখ করেছেন প্রায় ২৫০ টি হাদিস, ১০০ টি আসার, প্রায় ৬০০ জন ব্যক্তি এবং ৪০ টিরও বেশি ভিন্ন ভিন্ন বইয়ের নাম – আর এ সবই ছিল শুধুমাত্র তাঁর স্মৃতি থেকে।]

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *