নামায বর্জনকারীর বিধান

প্রশ্নঃ নামাজ বর্জনকারীর* রোজা সহীহ হবে?

উত্তরঃ মাজহাব অনুসারে আমভাবে তার রোজা বাতিল হবেনা। খাসভাবে, যদি বিশেষ কিছু শর্তের সাথে বর্জন করে তাহলে তাকে তাকফীর** করা হবে এবং রোজা বাতিল হয়ে যাবে। যতক্ষন সে তাকফীরের সম্মুখীন হচ্ছে না ততক্ষন তার রোজা বাতিল হবেনা_তবে গোনাহগার হবেন (নামাজ না পড়ার জন্য)। মাজহাব থেকে স্পষ্ট বর্ণিত, শুধুমাত্র বর্জনের কারনে কাউকে কাফের বলা হবেনা।

-শায়খ মোস্তফা হামদু হাম্বলী

——————-++++———————
*বর্জনকারী অর্থ হল যিনি নামাজের বিধান ফরজ স্বীকার করেন তবে অলসতা বা অন্য কোন কারণে আদায় করেন না।

**তাকফীরের অর্থ হল ইসলামী রাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান বা নির্বাহী ইমাম উক্ত বর্জনকারীকে ডেকে নামাজ বর্জন না করার আহ্বান জানাবেন। বুঝাবেন প্রায় তিন দিন ধরে। এতদসত্বেও নামাজ আদায় করার প্রতিশ্রুতি না দিলে তাকে সরকারি আদালতের সইসহ কাফের বলে ঘোষনা করা হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *