রমযান প্ল্যান

 শাইখ আবু ইব্রাহিম জন স্টারলিং

Collected From Internet

রমযান মাস হচ্ছে আত্মার উন্নতি এবং সওয়াব বাড়ানোর মাস। এই মাসের ফায়দা নেওয়ার জন্য নিয়ত করা এবং একটা প্ল্যান বানানো সবচেয়ে উত্তম।

আর আপনাদের সাহায্য করার জন্যে আমি শুরু করার মত একটা বেসিক প্ল্যান বানিয়েছি।
এই প্ল্যানের লক্ষ্য হচ্ছে সকল সালাত সংশ্লিষ্ট সুন্নাতসহ সময়মত আদায় করা, বেশি দুয়া এবং যিকর করা এবং পুরো মাসে অন্তত একবার কুর’আন পড়া। প্ল্যানটিতে সামাজিকতা এবং বিশ্রামের ব্যাপারও বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে।

আর যা বলেছি, এটা শুরু করার মত (বেসিক প্ল্যান), তোমার কাজ এবং বাড়তি লক্ষ্য অনুযায়ী পরিবর্তন করে নেওয়া উচিৎ।

——-
রাত:
সাহরির আগে [কমবেশি] তাহাজ্জুদ সালাত আদায় করা।

(মাযহাব অনুসারে দুই রাকাআত করে তাহাজ্জুদ আদায় করবে। নিম্ন বা সর্বোচ্চ সীমা নেই।)

সাহরির সময় :
সাহরি প্রস্তুত করুন এবং খান।
পরিবারের সাথে মিশুন।
ফজরের সালাতের কয়েক মিনিট আগে শেষ করুন।
ফজরের জন্যে প্রস্তুতি নিন।

ফজর:
২ রাকাআত সুন্নাতে রাতিবা।
আযান এবং ইকামতের মাঝে দুয়া পাঠ করা।
ফজরের সালাত।
[বাড়তি পয়েন্টঃ মাযহাব অনুসারে রাতিবা ঘরে পড়া উত্তম এবং ফরযের জামাআত মসজিদে- যদি সুযোগ থাকে।]
সালাতের পর যিকর এবং দুয়া
এক পারা কুর’আন পাঠ করা (প্রথম অপশন, এটা উত্তম)

সূর্য ওঠার ১৫-২০ মিনিট পরঃ
দুহার সালাত
সকালের যিকর এবং দুয়া
বিশ্রাম/ঘুম যদি দরকার হয়।
কাজ/স্কুল।

যুহর:
যুহরের জন্যে প্রস্তুতি নেওয়া।
২+২ রাকাআত নফল সালাত
২ রাকাআত সুন্নাতে রাতিবা (হানাফি মাযহাব অনুসারে ৪)।
আযান এবং ইকামতের মাঝে দুয়া।
যুহরের সালাত।
সালাতের পর যিকর এবং দুয়া।
২ রাকাআত সুন্নাতে রাতিবা।
২+২ রাকাআত নফল সালাত।

আসর:
আসরের জন্যে প্রস্তুতি নেওয়া।
২+২ রাকাআত নফল সালাত।
আযান এবং ইকামতের মাঝে দুয়া।
আসরের সালাত।
সালাতের পর যিকর এবং দুয়া।
সন্ধ্যার যিকর এবং দুয়া।
(মাগরিব পর্যন্ত আর কোনো সুন্নাত সালাত না! বাড়তি পয়েন্টঃ মাযহাব অনুসারে কাযা আদায় করা যাবে।)
এক পারা কুরআন পড়া (দ্বিতীয় অপশন)
বিশ্রাম/হালকা ঘুম যদি দরকার হয়।
পরিবারের সাথে মেশা।
মাগরিবের জন্যে প্রস্তুতি নেওয়া।
ইফতারের ২০ মিনিট পূর্বে জিসিএলইএর লাইভ রমযান রিমাইন্ডার পেতে ফেসবুক পেইজে যানঃ Facebook.com/TheGCLEA [বিঃদ্রঃ আমাদের সাথে সময় মিলবে না। কেউ চাইলে রেকর্ড ফলো করতে পারেন সময় হিসেব করে।]

ইফতার এবং মাগরিব:
পরিবারের সাথে রোযা ভাঙ্গা। হালকা কিছু খান যেমন খেজুর এবং পানি।
মাগরিবের সালাত।
সালাতের পর যিকর।
২ রাকাআত সুন্নাতে রাতিবা।
২+২ রাকাআত নফল সালাত।
পরিবারের সাথে রাতের খাবার খাওয়া এবং মেশা।
ইশা পর্যন্ত ২ রাকাআত করে নফল সালাত আদায় করুন। এগুলো কিয়ামুল লাইল হিসেবে গণ্য হবে।
ইশার সালাতের জন্যে প্রস্তুতি নেওয়া।
মসজিদে আগে আগে চলে যান।

ইশা:
আযান এবং ইকামতের মাঝে দুয়া পাঠ।
ইশার সালাত।
সালাতের পর যিকর এবং দুয়া।
২ রাকাআত সুন্নাতে রাতিবা।
২+২ রাকাআত নফল পড়া।
তারাবিহ পড়া, ইমাম শেষ করা পর্যন্ত।
বাড়িতে ফিরে আসা।
১ পারা কুরআন পাঠ করা ( তৃতীয় অপশন)
হালকা নাস্তা, যদি দরকার হয়।
ঘুম।
———————-

মূল লিঙ্কঃ https://www.gclea.org/post/proposed-ramadan-program

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *