সফররত অবস্থায় রোযা

কেউ যদি দূরবর্তী[১] স্থানে সফর করে,হাম্বলী মাযহাব অনুসারে তার জন্য উত্তম হলো সাওম ভঙ্গ করা যদিওবা তাদের সফরে কোনো কাঠিন্যতা না থাকে।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন,”এটা [সফরে সাওম ভাঙ্গা] আল্লাহর পক্ষ থেকে ছাড়। যদি কেউ তা গ্রহণ করে তবে তা উত্তম, এবং যদি সে সিয়াম পালন করে তবে তার কোনো গুণাহ নেই৷”[সহীহ মুসলিম]

১.মাযহাবের মু’তামাদ মতে দূরবর্তী দূরত্ব ১৩৮ কিলোমিটার এবং হাম্বলী ফক্বীহসহ বর্তমানের অনেক ফক্বীহের মতানুসারে তা ৮১ কিলোমিটার। ইমাম ইবনু কুদামাহ এবং ইমাম ইবনু তাইমিয়্যাহর মতানুসারে কোনো নির্দিষ্ট দূরত্ব নেই, বরং উরফ অনুসারে যা লোকেদের নিকট সফর হিসেবে বিবেচ্য, তা সালাত সংক্ষিপ্ত করার এবং সাওম ভাঙ্গার অনুমতি দেয়।

https://www.thehanbalimadhhab.com/travelling-a-long-distance-whilst-fasting/

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *