সফরের সময় রোযা রাখা

সফরের সময়ে সিয়াম পালন করলে কেউ কি নিন্দনীয় হবে? 

উত্তর:

হামযা ইবনু আমর আল আসলামী রাদিআল্লাহু আনহু বলেন,”ইয়া রাসুলুল্লাহ, সফরের সময় সিয়াম পালনের জন্য আমি নিজেকে যথেষ্ট শক্তিশালী পেয়েছি, আমি কি নিন্দার যোগ্য?”

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন,”এটা [সফরে সাওম ভাঙ্গা] আল্লাহর পক্ষ থেকে ছাড়। যদি কেউ তা গ্রহণ করে তবে তা উত্তম, এবং যদি সে সিয়াম পালন করে তবে তার কোনো গুণাহ নেই৷”[সহীহ মুসলিম]

আল মাজদ [র] বলেন,”এই বর্ণনায় শক্তিশালী নির্দেশনা রয়েছে যে [মুসাফির অবস্থায়] সিয়াম ভঙ্গ করা পালন করা থেকে উত্তম।”

এটি বর্ণিত হয়েছে ইবনু আব্বাস এবং ইবনু উমার থেকে এবং তা আহমাদ, আল আওযা’ঈ, ইসহাক এর মাযহাব।


মুলঃ দা হানবালি মাযহাব

সংযুক্তিঃ মাযহাবের মতে, সাধারনভাবে কেউ সফররত অবস্থায় রোযা রাখা মাকরুহ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *