হাম্বলি ফিকহে বিয়ের হুকুম

যেসকল নারীপুরুষের কামনা রয়েছে কিন্তু তাঁরা জিনায় পতিত হবার ভয় করেন না, তাদের জন্যে বিয়ে করা সুন্নাত

শাহওয়া না থাকলে বিয়ে করা মুবাহ, যেমনঃ নপুংসক ব্যক্তি, [অথবা মেডিক্যাল বা অন্য কোনো কারণে- উস্তাদ জাহেদ ফেত্তাহ]

কামনাবিশিষ্ট মানুষের জন্যে নফল ইবাদাত থেকে বিয়ে করা উত্তম।

যারা বিয়ে না করলে [সত্যিকারের] জিনায় পতিত হবার ভয় করে, তাদের জন্যে বিয়ে করা ওয়াজিব। [অধিকাংশ হানাবিলা শুধু জিনার ভয়ের ব্যাপারেই বলেছেন। কিছু হাম্বলি আলিমের শব্দচয়ন বা কারণ অন্য হারামের ব্যাপারেও ইঙ্গিত করে- উস্তাদ জাহেদ ফেত্তাহ]

একজন নারীকে বিয়ে করা সুন্নাহ। [কারণ একাধিক বিয়ে করলে হারামের দিকে নিয়ে যেতে পারে। ইমাম বুহুতি বলেছেনঃ কারণ আল্লাহ্‌ বলেছেন, “وَلَن تَسْتَطِيعُوٓا۟ أَن تَعْدِلُوا۟ بَيْنَ ٱلنِّسَآءِ وَلَوْ حَرَصْتُمْ ۖ “। (তোমরা কখনও স্ত্রীগণের মধ্যে সুবিচার করতে পারবেনা যদিও তোমরা তা কামনা কর।)

শাইখ ইউসুফ বিন সাদিক এবং শাইখ আব্দুর রহমান আশ-শামির মতে, একাধিক বিয়ে করা সাধারণভাবে মাকরুহ, যদি না ওজর (যেমন গ্রহণযোগ্য প্রয়োজন) থাকে, (সেক্ষেত্রে মুবাহ হবে)।

অন্যরা যেমন শাইখ আব্দুল ওয়াহিদ আল-আযহারি বলেছেন, জায়েজ তবে খিলাফ আল-আওলা, অর্থাৎ মুবাহ থেকে নিচে, মাকরুহ থেকে উপরে।]

[রেফারেন্স, রওদুল মুরবি- ইমাম বুহুতি, আখসার আল-মুখতাসারাত]

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *