হাম্বলি ফিকহ শেখার পদ্ধতি- শাইখ মুসা ফারবার, শাইখ জো ব্র্যাডফোর্ড, শাইখ হাসিব মাদানি

ইংরেজিতে আখসার ও যাদের কিয়দংশ অনুবাদক শায়খ মুসা আলোচনা করছিলেন হাম্বলী সিলেবাস কেমন হতে পারে। যেই সিলেবাস মোটামুটি মাজহাব সম্বন্ধে কাউকে সম্যক ধারণা দেবে। শায়খের প্রস্তাবঃ

১. কাশফুল মোখাদ্দারাত
২. নায়লুল মায়ারেব
৩. আর রওদুল মুরবী
৪. শরহে মুন্তাহা

শায়খ মুসার প্রস্তাবের বিপরীতে শায়খ ব্র্যাডফোর্ড (যিনি ইংরেজীতে কাদ্দুমীর রেসালা অনুবাদ করেছেন) কয়েকটি সিলেবাসের ধরণ পেশ করেনঃ

প্রথমঃ
১. আল উদ্দাহ শরহে উমদাহ (বাহাউদ্দীন)
২. আল মুমতী শরহে মুকনী (তানুখী)
৩. আল মুবদী শরহে মুকনী (ইবনে রজব)
৪. শরহে কবীর (শামসুদ্দীন)

দ্বিতীয়ঃ
১. মিনহাজুল সালেকীন
২. দলীলুত তালেব
৩. আল কাফী
৪. শরহে মুন্তাহা

তৃতীয়ঃ (শায়খের পছন্দ)
১. কাদ্দুমীর রেসালা
২. দলীলুত তালেব
৩. মাতালেব উলিয়ুন নুহা
৪. আল ফুরু

শায়খ হাসিব মাদানী হাম্বলী প্রস্তাব করেনঃ

১. আখসারুল মোখতাসারাত
২. দলীলুত তালেব (সাথে মানার)
৩. শরহে মুন্তাহা (সাথে মাতালেব)
৪. এছাড়াও মুবদী, মুমতী, কাশশাফ, ইনসাফ, শরহে কবীর মোতালায়া।
৫. পরিশেষে মুগনী।

উপরোক্ত প্রতিটি শায়খ মাজহাবের ইজাযা প্রাপ্ত। শায়খ মুসা সিরিয়াতে এবং বাকি দুজন সৌদীতে প্রশিক্ষিত হয়েছেন। এই লিস্ট শেয়ার করার উদ্দেশ্য হলো ফুরু পড়ার বিভিন্ন মানহাজের সাথে পরিচিতি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *