Month: March 2020

কবর যিয়ারতকারী বা কবরের পাশ দিয়ে যাবার সময় দু’আ

মুসলিমদের কবর যিয়ারতকারী বা তার পাশ দিয়ে অতিক্রমকারী ব্যক্তির জন্য সুন্নাহ হলো বলা- السَّلَامُ عَلَيْكُمْ دَارَ قَوْمٍ مُؤْمِنِينَ (أَوْ أَهْلَ الدِّيَارِ مِنْ الْمُؤْمِنِينَ) وَإِنَّا إنْ شَاءَ اللَّهُ بِكُمْ لَلَاحِقُونَ وَيَرْحَمُ اللَّهُ الْمُسْتَقْدِمِينَ مِنْكُمْ وَالْمُسْتَأْخِرِينَ نَسْأَلُ اللَّهَ لَنَا وَلَكُمْ الْعَافِيَةِ ، اللَّهُمَّ لَا تَحْرِمْنَا أَجْرَهُمْ وَلَا تَفْتِنَّا بَعْدَهُمْ وَاغْفِرْ لَنَا وَلَهُمْ  আসসালামু আলাইকুম দারা কওমিন মু’মিনীন …

কবর যিয়ারতকারী বা কবরের পাশ দিয়ে যাবার সময় দু’আ Read More »

মুফরাদাতুল হানাবিলা

আল-মুফরাদাত হলো এমন কোন মাস’আলা যেখানে সুপরিচিত চার মাযহাবের কোন একজন ইমাম বাকি তিন মাযহাবের প্রসিদ্ধ (মাশহুর) মতের বিপরীত অবস্থান নিয়েছেন। এধরনের মুফরাদাতের ব্যাপারে যে মাযহাবের ‘আলিমগণ সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন এবং সর্বোচ্চ সংখ্যক বই লিখেছেন, তারা হলেন ‘উলামা আল-হানাবিলা। বিশেষত ইমাম আল-ক্বাদি আবু ইয়ালার (রাহিমাহুল্লাহ) সমকালিন ‘আলিমগণ। এর একটা কারণ আছে। কারণটা হলো ঐ …

মুফরাদাতুল হানাবিলা Read More »

প্রতেক ফরয সালাতের সালাম ফেরানোর পর পঠিতব্য মাসনুন যিকরসমূহ:

প্রতেক ফরয সালাতের সালাম ফেরানোর পর পঠিতব্য মাসনুন যিকরসমূহ: ১। আস্তাগফিরুল্লাহ – ৩ বার ২। আল্লাহুম্মা আনতাস সালাম ওয়া মিনকাস সালাম, তাবারাকতা ইয়া যালযালালি ওয়াল ইকরাম। ৩। সুবহানাল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ, আল্লাহু আকবার – ৩৩ বার; উত্তম হলো তিনটি একত্রে বলা এবং আঙ্গুল দিয়ে গণনা করা। [এরপর “লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারিকা লাহু, লাহু-ল মুল্কু ওয়া …

প্রতেক ফরয সালাতের সালাম ফেরানোর পর পঠিতব্য মাসনুন যিকরসমূহ: Read More »

হাম্বলি ফিকহ অধ্যয়নের সিলেবাস- শাইখ ড. মুতলাক আল-জাসির

হাম্বলি ফিকহে পড়াশুনার জন্য শাইখ মুত্বলাক্ব আল-জাসিরের প্রস্তাবিত সিলেবাস: ১ম পর্যায়: বিদায়াতুল আবিদ ২য় পর্যায়: উমদাতুত ত্বালিব ৩য় পর্যায়: হিদায়াতুর রাগিব ৪র্থ পর্যায়: মুনতাহাল ইরাদাত (সাথে শাইখ মানসুর আল-বুহুতির শারহ)

মামা-ভাগ্নে

শাইখ মুহাম্মাদ আল-খালওয়াতি (১০৮৮হি) পরবর্তী যুগের হাম্বলি ফিকহের অন্যতম ‘আলিম। হাম্বলি ফিকহের দুই মু’তামাদ কিতাব “আল-মুনতাহা” এবং “আল-ইক্বনা”র উপর লেখা তার হাশিয়াকে অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখা হয়। এর অন্যতম কিছু কারণ হলো আরবি ভাষায় তার পান্ডিত্য, তার ফিকহি দক্ষতা এবং তার প্রিয় শিক্ষক ও মামার কাছ থেকে প্রশ্নের মাধ্যমে জেনে নেয়া অনেক উত্তর যা তিনি …

মামা-ভাগ্নে Read More »

চাচা-ভাতিজা

মুওয়াফফাক্ব আদ-দীন আবদুল্লাহ বিন আহমাদ ইবন কুদামাহ আল-মাক্বদিসি (৬২০হি)। মনে হয় না, ইমামের পরিচয় দেয়ার কোন দরকার আছে। উমদাতুল ফিকহ, আল-মুক্বনি, আল-কাফি এবং আল-মুগনির রচয়িতা একজন মুজতাহিদ ইমাম ছিলেন আল-মুওয়াফফাক্ব (রাহিমাহুল্লাহ)। শুধু হাম্বলি নয় বরং ফিকহুল ইসলামিতেই তিনি অবিস্মরণীয় হয়ে আছেন। উনার বড় ভাইও ছিলেন, অত্যন্ত বড় মাপের ‘আলিম। আবু উমার মুহাম্মাদ বিন আহমাদ ইবন …

চাচা-ভাতিজা Read More »

ভাই-ভাই

হাম্বলী ফিকহের প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য শাইখ ইবন বালবানের (১০৮৩হি) দু’টি বই আছে। শাইখ প্রথমে লিখেছিলেন “কাফি আল-মুবতাদি”; এরপর এটিকে আরো সংক্ষিপ্ত করে লিখেন “আখসার আল-মুখতাসারাত”। আখসারের শারহ করেছেন শাইখ আব্দুর রহমান বিন আব্দিল্লাহ আল-বা’লী (১১৯২হি) [বিদায়াতুল আবিদের লেখক], যার নাম “কাশফ আল-মুখাদ্দারাত”।  কাফি আল-মুবতাদিরও একটি শারহ আছে, নাম “আর-রাওদ্ব আন-নাদি”, করেছেন শাইখ আহমাদ বিন …

ভাই-ভাই Read More »

অ্যালকোহলযুক্ত স্যানিটাইজার ও পারফিউম

বিদায়াতুল আবিদ ওয়া কিফায়াতুল জাহিদে ইমাম আল-বালি বলেছেন, “তরল নেশাজাতীয় দ্রব্য [খামর] নাজিস” বৈজ্ঞানিক পরিভাষায় অ্যালকোহল বলতে সিম্পলি (OH) গ্রুপ থাকা জৈব যৌগকে নির্দেশ করে। মাযহাবের মতে, নাজিস হচ্ছে খামর। তাই যেকোনো অ্যালকোহলই নাজিস হওয়া অপরিহার্য নয়, সাধারণত ইথাইল অ্যালকোহল বা ইথানল নাজিস। উস্তাদ মাজেদ জাররার বলেছেনঃ “সকল খামর নাজিস, এমনকি অল্প পরিমাণে হলেও”। অপ্রাকৃতিক …

অ্যালকোহলযুক্ত স্যানিটাইজার ও পারফিউম Read More »

পুরুষদের টাখনুর নিচে কাপড় যাবার বিধান কি?

মাযহাবে বিনা প্রয়োজনে টাখনুর নিচে কাপড় পরা মাকরূহ এবং অহংকার থাকলে হারাম ” ويكره أن يكون ثوب الرجل تحت كعبه بلا حاجة ” انتهى باختصار .—الإقناع (1/139). “কোনো প্রয়োজন ছাড়া একজন লোকের কাপড় টাখনুর নিচে আসা মাকরূহ।”—[আল-ইক্বনা’, ১/১৩৯] ইমাম ইবন কুদামাহ বলেনঃ ” ويكره إسبال القميص والإزار والسراويل ؛ فإن فعل ذلك على وجه الخيلاء …

পুরুষদের টাখনুর নিচে কাপড় যাবার বিধান কি? Read More »

করোনা ভাইরাসের জন্যে কি জামাআতে সালাত ত্যাগ করা যাবে?

করোনা ভাইরাস এবং জামাআতে সালাত ইমাম মারদাবি [রহিমাহুলাহ] তাঁর মাযহাবের মতের সংকলনের বিখ্যাত কিতাব আল-ইনসাফে বলেছেনঃ ويُعْذرُ في تركِ الجُمُعَةِ والجَماعَةِ، المَريضُ. بلا نِزاعٍ، ويُعْذَرُ أيضًا في ترْكِهما لخَوْفِ حُدوثِ المرَضِ. “জুমুআ এবং জামাআতের সালাত ত্যাগ করা অসুস্থ ব্যক্তির জন্যে জায়েজ [ওজরপ্রাপ্ত]। এই ব্যাপারে [মাযহাবে] ইখতিলাফ নেই। তেমনি যে ব্যক্তি অসুস্থ হবার ভয় করে, সে-ও …

করোনা ভাইরাসের জন্যে কি জামাআতে সালাত ত্যাগ করা যাবে? Read More »