তাকলিদ

আওয়ামের কি দলিল জানা ওয়াজিব?

যদি কোন আওয়াম [সাধারণ লোক] তার বিশ্বস্ত আলেমের কাছে কোন নির্দিষ্ট মাসয়ালায় ইসলামের বিধান জানতে যথাসাধ্য চেষ্টা করেন, তাহলে তিনি  আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’য়ালা তাকে যা আদেশ করেছেন, তা করলেন এবং এটা তার দুনিয়া এবং আখিরাতের জন্য যথেষ্ট হবে। আওয়াম তার মুফতির (বা মাযহাবের) দলিল জানতে দায়বদ্ধ নন, না (দায়বদ্ধ) অন্য আলেমগণ কী বলেছেন তা …

আওয়ামের কি দলিল জানা ওয়াজিব? Read More »

একই বিষয়ে একাধিক আলেমকে প্রশ্ন করা প্রসঙ্গে

(কোন) প্রশ্নকারীর একাধিক আলেমকে জিজ্ঞাসা করা উচিত নয়। আপনি চার বা পাঁচ জন আলেমকে জিজ্ঞাসা করেন, তারপরে আপনি দাবি করেন যে আপনি সংশয়ে আছেন। আপনি নিজের উপর কঠোর হয়েছিলেন তাই ব্যাপারগুলো আপনার জন্য কঠিন হয়ে পড়েছিল, যা (পূর্বে) ঘটেছিল বনি ইসরায়েল এর সাথে। আপনার দ্বায়িত্ব হলো এমন কাউকে খুঁজে বের করা যার ধার্মিকতা এবং জ্ঞানকে …

একই বিষয়ে একাধিক আলেমকে প্রশ্ন করা প্রসঙ্গে Read More »

সবক্ষেত্রে এক মাযহাব অনুসরণ করা

আমাদের মাযহাব অনুযায়ী, সর্ব অবস্থায় এক মাযহাব অনুসরণ করা ওয়াজিব নয়। তাই, এক মাসয়ালায় এক মাযহাব বা আলিমের অনুসরণ এবং আরেক মাসয়ালায় ভিন্ন কোন মাযহাব অনুসরণ করা বৈধ। (তবে তা) এই শর্তে যে, তা আপনি সাধারণত আপনার সুবিধা এবং খায়েশাত অনুযায়ী করবেন না। [সুত্র: শরাহ আল-তাহরির || ইমাম আল-মারদাওয়ি রাহিমাহুল্লাহ] এটাই মাযহাবের মু’তামাদ মত। অন্য …

সবক্ষেত্রে এক মাযহাব অনুসরণ করা Read More »

কার কাছে ফতওয়া চাইব?

প্রবন্ধটি “আল উসুল মিন ইলম আল-উসুল”-এর উপর উস্তায যাইন আল-আবিদিন আল–হাম্বলির দরসের আলোকে রমিয আবিদের নেওয়া নোট অবলম্বনে লেখা হয়েছে।] ফতওয়া হচ্ছে কোনো ইস্যুতে কাউকে আল্লাহ্‌র শারই হুকুম জানানো। যিনি অন্যদের এই হুকুম সম্পর্কে অবহিত করেন, তিনি হচ্ছে মুফতি। আর যিনি ফতওয়ার জন্যে জিজ্ঞেস করেন, তিনি হচ্ছেন মুস্তাফি অথবা ফতওয়াপ্রার্থী। যাদের কাছে ফতওয়া চাওয়া যেতে পারেঃ …

কার কাছে ফতওয়া চাইব? Read More »

ইজতিহাদ কি সহজ?

ইবনে বাদরান যখন তাকলীদ করতে না বলেন বা মাজহাবের কেউ যখন ইমাম আহমদের কওল “হাদিস সহীহ হলে তাই আমার মাজহাব” উল্লেখ করেলন তার নিজস্ব একটি ব্যাখ্যা আছে। ব্যাখ্যা হলো মোখাতেব। মোখাতেব তারা যারা মাজহাবে মুতকিন এবং মাহের। কোন অসমাপ্ত প্রশিক্ষিত, সাধারন জনতা বা শিক্ষারত তালেবে ইলম এই মোখাতেবের আওতাধীন নন। তারা সবাই তাকলীদ করবে মোটাদাগে। …

ইজতিহাদ কি সহজ? Read More »

মাযহাবের বাইরে যাওয়া

শাইখ করিম আল হিলমি আল-হাম্বলি বলেছেনঃ “হাম্বলি মাযহাবে তাকলিদকারী ব্যক্তি মাযহাবের যেকোনো শক্তিশালী মত গ্রহণ করতে পারেন এবং তার জন্যে মাযহাবের মাশহুর [সুপরিচিত] মতে সীমাবদ্ধ থাকা অপরিহার্য নয়।” শাইখ জাহেদ ফেত্তাহ যোগ করেছেন, এখন, যদি কেউ কোন মাযহাব অনুসরণ করে, তাহলে তার মাশহুর মতের বিপরীতে যাবার ক্ষেত্রে কোন “ভাল কারণ” থাকা উচিত, কারণ এটা আমাদের …

মাযহাবের বাইরে যাওয়া Read More »

মাযহাব অনুসরণ কি ফরয? – উস্তাদ জাহেদ ফেত্তাহ[2]

প্রথমত, সবার আগে প্রশ্ন হচ্ছে- “কোন মাযহাব অনুসরণের ব্যাপারে হুকুম কি?” অধিকাংশ আলিমের মতে, একটি মাযহাব অনুসরণ করা ওয়াজিব নয়। বিশেষ করে হাম্বলিদের অবস্থান এটি। অন্যান্য মাযহাবেও এসেছে, যেমনঃ শাফেয়ী। তাঁরা বলেছে একটি মাযহাব অনুসরণ করা ওয়াজিব নয়। এখন, একটি মাযহাব অনুসরণ বলতে কি বোঝানো হচ্ছে? এর মানে হচ্ছে প্রতিটি জিনিস, প্রতিটি কাজই আপনি একটি …

মাযহাব অনুসরণ কি ফরয? – উস্তাদ জাহেদ ফেত্তাহ[2] Read More »

তাকলিদ কার?[1]

ড. মুহাম্মাদ বাজাবির[2]  কোন ছাত্রের মাথা আমি নিজের মত দিয়ে ভর্তি করতে চাইনা, বরং আমি মনে করি যে নিজস্ব মত থেকে মাযহাবের ইমামদের মতামতগুলোকে প্রাধান্য দেওয়া উত্তম। অনুগ্রহ করে বোঝার চেষ্টা করো আমি যা বলতে যাচ্ছিঃ মাঝেমধ্যে কেউ কোন একটি মতের দিকে ঝুঁকতে পারে এবং সেই বিষয়ে ইমাম আল-হাজ্জাউই অথবা মাযহাবগুলোর সব ইমামদের বিপরীতে যেতে …

তাকলিদ কার?[1] Read More »

হাম্বলি মাযহাব অনুসারে তাকলিদ[1]

 একজন সাধারণ মানুষের জন্যে কোন আলিমের তাকলিদ করা ওয়াজিব এবং আহলুস সুন্নাহতে এই ব্যাপারে দ্বিমত নেই। তার জন্যে সকল ক্ষেত্রে কোন নির্দিষ্ট মাযহাবের তাকলিদ করা জায়েজ। তবে, হাম্বলি মাযহাব অনুসারে এটি ফরয নয়। সুতরাং, তার জন্যে সবসময় একটি নির্দিষ্ট মাযহাবে নিবদ্ধ থাকা জায়েজ; অথবা একটি ইস্যু কোন একটি মাযহাব বা আলিমকে অনুসরণ করা এবং আরেকটি …

হাম্বলি মাযহাব অনুসারে তাকলিদ[1] Read More »